নূপুর শর্মাকে শিরশ্ছেদ করে হত্যার উস্কানি, আজমীর শরীফের খাদেম গ্রেপ্তার

Anweshan Desk

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৬ জুলাই ২০২২, ২০:৫৫ পিএম


নূপুর শর্মাকে শিরশ্ছেদ করে হত্যার উস্কানি, আজমীর শরীফের খাদেম গ্রেপ্তার

ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক নবী মোহাম্মদের ‘পাখাওয়ালা ঘোড়ায় চড়ে মেরাজ গমন’ এবং 'শিশু আয়েশার সাথে বিয়ে' নিয়ে  মন্তব্য করে আলোচিত ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির নেত্রী নুপুর শর্মাকে শিরোচ্ছেদ করে হত্যার উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে আজমীর শরীফ দরগার সালমান চিশতী নামে এক খাদেমকে গ্রেপ্তার করেছে রাজস্থান পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

এর আগে এক ভিডিও বার্তায় ওই খাদেম নূপুর শর্মার শিরশ্ছেদের উস্কানি দেন। এই অভিযোগে সোমবার রাতে থানায় মামলা হলে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়,  ভিডিওতে নূপুর শর্মার উদ্দেশে দরগাহর ওই খাদেমকে বলতে শোনা যায়, ‘সব মুসলিম দেশের কাছে আপনাকে জবাবদিহি করতে হবে। আমি রাজস্থানের আজমির শরিফ থেকে বলছি। হুজুর খাজা বাবার দরবার থেকে এ বার্তা দেওয়া হচ্ছে।’

ঐ ভিডিওতে খাদেম সালমানকে আরো বলতে শোনা যায়,  যে ব্যক্তি নূপুর শর্মার শিরশ্ছেদ করতে পারবেন, তাঁকে নিজের বাড়ি উপহার দেবেন তিনি। নূপুর শর্মাকে পেলে গুলি করে হত্যা করবেন বলেও হুমকি দেন তিনি।

পুলিশ কর্মকর্তা দলবীর সিং ফৌজদারের বরাতে বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে অতীতেও অপরাধ সংঘটনের অভিযোগ রয়েছে।

রাজস্থানের রাজ্য পুলিশ বলেছে, কেউ সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টিকারী মন্তব্য করলে তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক মোহাম্মদকে নিয়ে  কটূক্তির জেরে সম্প্রতি রাজস্থানের উদয়পুরে এক হিন্দু ধর্মাবলম্বী দর্জিকে হত্যা করে দুই মুসলমান জঙ্গি। কানহাইয়া লাল তেলি নামের ওই দর্জি নূপুর শর্মার মন্তব্যকে সমর্থন করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে। এ হত্যাকাণ্ডের একটি ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়লে পুরো রাজস্থানজুড়ে ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

পরে একই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আরেকটি ভিডিও বার্তা দেওয়া হয়। যেখানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে “হত্যার” হুমকি দেওয়া হয়। পরে তাদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

 

৫২৬৯ বার পঠিত


Link copied