আজহারীর পেইজে কমেন্টের জেরঃ গুজব ছড়িয়ে হিন্দু পল্লীতে হামলা, হিন্দু যুবক গ্রেফতার

Anweshan Desk

মানবাধিকার ডেস্ক

৩০ জুন ২০২২, ২৩:২৪ পিএম


আজহারীর পেইজে কমেন্টের জেরঃ গুজব ছড়িয়ে হিন্দু পল্লীতে হামলা, হিন্দু যুবক গ্রেফতার

উগ্রপন্থী ইসলাম প্রচারক ও ধর্ম ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান আজহারীর ওয়াজের ফেসবুক পোস্টে কমেন্ট করায় ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের হুজুগ তুলে খুলনায় উৎপল মণ্ডল (২৯) নামে হিন্দু যুবককে হয়রানী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভিক্টিম যুবককে নিরাপত্তা দেওয়ার পরিবর্তে হয়রানীমূলক গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

 

বুধবার (২৯ জুন) রাতে খুলনার পুলিশ সুপার মো. মাহবুব হোসেন মিডিয়াকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

তিনি জানান, মিজানুর রহমান আজহারীর ওয়াজের ফেসবুক পোস্টে কমেন্ট করায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। রাষ্ট্র বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও জনরোষ তৈরির অভিযোগে মামলা করেছে। মঙ্গলবার তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আদালত দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।  

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, কয়রা উপজেলার মহেশ্বরীপুর ইউনিয়নের ভাগবা এলাকায় ওই যুবকের বাড়িতে মঙ্গলবার হামলা চালাতে আসে বেশ কয়েকজন ধর্মীয় উগ্রপন্থী যুবক। তবে স্থানীয়দের প্রতিরোধের মুখে খুব বেশি ভাঙচুর করতে পারেনি। হামলা হতে পারে এমন খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন হামলাকারীদের প্রতিরোধ করে। কিন্তু তা সত্ত্বেও হামলায় উৎপলের বাড়ির কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। পরে পুলিশ এসে ৫ যুবককে ধরে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে কয়রা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ বি এম এস দোহা বলেন, মিজানুর রহমান আজহারীর ওয়াজের ফেসবুক পোস্টে কমেন্ট করাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় কিছু যুবক কমেন্টকারীর বাড়িতে মঙ্গলবার অবস্থান নেয় ও তাকে খুঁজতে থাকে। পরে পুলিশ এসে পাঁচজন যুবককে ধরে আনে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য উৎপল মণ্ডলকেও ডেকে নেয়া হয় থানায়।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ১৭ মার্চ হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হকের সমালোচনা করে এক হিন্দু যুবকের পোস্টকে কেন্দ্র করে একই প্যাটার্নে  ধর্মানুভুতিতে আঘাতের গুজব তুলে সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় হিন্দু পল্লীতে হামলা চালানো হয়৷ ৬০-৭০টি বাড়িঘর ভাঙচুর করে স্থানীয় উগ্রপন্থী মুসলমানরা৷

এছাড়া, গত কয়েক বছর ধরে ইসলাম ধর্ম অবমাননা এবং ধর্মানুভুতিতে আঘাতের গুজব ছড়িয়ে  উগ্রপন্থী ও ধর্মান্ধ মুসলমানদের একটি চক্র ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন ও সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু, এদেরকে কঠোর হস্তে দমনের পরিবর্তে, ভিক্টিম সংখ্যালঘুদের বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহারে মাধ্যমে হয়রানীমূলক গ্রেফতার এবং বিনা বিচারে হাজতবাস করাতে বাধ্য করছে।  

মানবাধিকার কর্মীদের অভিযোগ,  বিচারহীনতার সংস্কৃতি, সরকারের ধর্মীয় উগ্রবাদ তোষণের কারণে এ ধরনের ন্যাক্কারজনক ঘটনার পুনরাবৃত্তি হচ্ছে।

৫৯২ বার পঠিত

মানবাধিকার থেকে আরও


Link copied