পিরোজপুরে প্রতিমা ভাঙচুর, ৪ মুসলমান কিশোর গ্রেফতার

Anweshan Desk

জাতীয় ডেস্ক

০৩ অগাস্ট ২০২২, ১৪:৪১ পিএম


পিরোজপুরে প্রতিমা ভাঙচুর,  ৪ মুসলমান কিশোর গ্রেফতার

পিরোজপুর সদর উপজেলার দূর্গাপুর ইউনিয়নে একটি মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের অভিযোগে চার মুসলমান কিশোরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

 

সোমবার (১ আগস্ট) দুপুরে তাদেরকে উপজেলার কাথুলিয়া গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃৃতরা হল- দুর্গাপুরের পাশ্ববর্তী টোনা ইউনিয়নের লোহাকাঠি গ্রামের মো. বাহাদুর শেখের ছেলে মো. শুভ শেখ (১৬), হুলারহাটের এমাদুল শেখের ছেলে হাসান শেখ (১৭), কলাখলীর চলপুকুরিয়ার পথেরহাটের গ্রামের দুলাল বেপারীর ছেলে মো. আবু বক্কর সিদ্দকি (১৭) ও গজালিয়া উদয়কাঠী গ্রামের হায়দার মোলতার ছেলে রমজান (১২)।

মন্দিরের সেবাইত কালাচাঁদ মণ্ডল বলেন, "আমি প্রতিদিন বেলা ১১টার দিকে পূজা শেষ করে বাড়ি চলে যাই। সোমবার সকালে মন্দিরে এসে দেখি একটি প্রতিমার হাত, পা ও মাথা ভাঙা। পরে এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানতে পারি, রোববার দুপুরে তারা কয়েকটি ছেলেকে মন্দিরের কাছে দেখেছিলেন। ভাঙচুরের খবর পেয়ে তারা তিন কিশোরকে শনাক্ত করে। তিন কিশোর ভাঙচুরের কথা স্বীকার করে। তাছাড়া তারা ভাঙচুরে জড়িত বলে আরও এক কিশোরের নাম বলে। পুলিশ গিয়ে তিনজনকে আটক করে এবং অন্য কিশোরকে খুঁজে বের করে।"

পিরোজপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জাফর মো. মাসুদুজ্জামান জানান, রোববার (৩১ জুলাই) বিকেলে ওই চার কিশোর পার্শ্ববর্তী কাথুলিয়া গ্রামে ঘুরতে গিয়ে নির্জন স্থানে থাকা কাথুলিয়া সার্বজনীন শীতলা মন্দিরের একটি প্রতিমার হাত ও পা ভেঙে ফেলে।  সোমবার সকালে বিষয়টি স্থানীয়দের নজরে আসলে তারা সদর থানায় খবর দেয়। এরপর চার কিশোর পুনরায় ওই গ্রামে গেলে তাদের আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় স্থানীয়রা তাদেরকে আটক করে। এ ঘটনায় মন্দিরের সেবায়েত কালা চাঁদ বাদী হয়ে ওই চার কিশোরের বিরুদ্ধে পিরোজপুর সদর থানায় মামলা করেছে বলে জানান তিনি। 

 

৩২৬ বার পঠিত

জাতীয় থেকে আরও


Link copied