কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত নৌকা সমর্থকের মৃত্যু

Anweshan Desk

Anweshan Desk

১৫ জানুয়ারী ২০২৪, ২২:০৯ পিএম


কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত নৌকা সমর্থকের মৃত্যু

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত হওয়া নৌকার সমর্থক জিয়ার হোসেন (৪৫) তিনদিন পর মারা গেছেন। সোমবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। জিয়ার হোসেন কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের বের কালোয়া গ্রামের কেঁদো শেখের ছেলে।

মোবাইল ফোনে নিহতের ছোট ভাই ইয়ারুল বলেন, ‘নৌকায় ভোট দেওয়ার অপরাধে ১২ জানুয়ারি সকালে সাবেক ইউপি সদস্য খালেক ও তার তিন ছেলে রিপন,  লিটন, শিপনসহ তাদের সন্ত্রাসী বাহিনী আমার দুই ভাইকে গুলি করে। তাদের মধ্যে জিয়ার আজ পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।’ তিনি আসামিদের ফাঁসির দাবি করে থানায় মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে খালেক মেম্বর ও তাঁর ছেলে রিপন আলীর মোবাইল ফোনে বারবার কল দিলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়। তবে ১২ জানুয়ারি তিনি ফোনে বলেছিলেন, প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের উপর হামলা করেছিল। সেজন্য তারাও প্রতিপক্ষকে পাল্টা ধাওয়া দিয়েছিল। সে সময় কয়েকজনকে মারধর করা হয়। তবে গোলাগুলির কোনো ঘটনা ঘটেনি।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আকিবুল ইসলাম জানান, মৃত্যুর খবর তিনি শুনেছেন। ১৪ জনকে আসামি করে থানায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযানে অব্যাহত রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।


Link copied