সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা

Anweshan Desk

Anweshan Desk

১৫ জুন ২০২৩, ২১:৩৩ পিএম


সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যা

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় সন্ত্রাসীদের হামলায় গোলাম রব্বানি নাদিম নামের এক সাংবাদিক নিহত হয়েছেন।

 

বৃহস্পতিবার (১৫ জুন) বেলা পৌনে ৩টার দিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

 

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ উপপরিদর্শক রফিকুল ইসলাম তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 

গোলাম রাব্বানী নাদিম উপজেলার নিলাখিয়া ইউনিয়নের গোমের চর গ্রামের আবদুল করিমের ছেলে। তিনি বাংলানিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের জামালপুর জেলা প্রতিনিধি এবং একাত্তর টিভি ও দৈনিক মানবজমিনের বকশীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি। এছাড়া তিনি জামালপুর অনলাইন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি ছিলেন।

 

 

সংবাদ প্রকাশকে কেন্দ্র গতকাল বুধবার রাত ১০টার দিকে বকশিগঞ্জ বাজারের পাটহাটি এলাকায় সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুর লোকজন সাংবাদিক নাদিমের ওপর হামলা চালায় বলে পরিবারের অভিযোগ।

 

সহকর্মী ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সাংবাদিক নাদিম পেশাগত দায়িত্বপালন শেষে বকশিগঞ্জ বাজার থেকে রাতে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় পাটহাটি এলাকায় পৌঁছলে পূর্বপ্রস্তুতি অনুযায়ী সন্ত্রাসীরা নাদিমের ওপর হামলা চালিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করে। এ সময় স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বকশীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এরপর অবস্থার অবনতি হলে রাত ১২টায় সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল এবং সকালে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ বিকেল পৌনে ৩টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

 

নিহত সাংবাদিকের স্ত্রী মনিরা বেগম অভিযোগ করেন, সংবাদ প্রকাশকে কেন্দ্র সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল আলম বাবু সম্প্রতি নাদিমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এ মামলা গতকাল বুধবার খারিজ হওয়ার পর চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবু ক্ষিপ্ত হন এবং লোকজন দিয়ে নাদিমের ওপর হামলা করেন।

 

অভিযোগের বিষয়ে সাধুরপাড়া ইউপির চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলমের মুঠোফোনের একাধিকবার ফোন দিয়েও বন্ধ পাওয়ায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

জামালপুরের পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহমেদ অন্বেষণ নিউজকে  বলেন, নিহত সাংবাদিকের ওপর হামলাকারীদের সিসিটিভি ফুটেজের মাধ্যমে শনাক্ত করা হয়েছে। ইতিমধ্যে পুলিশের পাঁচটি দল মাঠে কাজ করছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করা হবে। ওই সাংবাদিকের চিকিৎসার জন্য স্বজনেরা ব্যস্ত থাকায় এখনো থানায় মামলা হয়নি।

 

সাংবাদিক হত্যার ঘটনায় জামালপুর প্রেসক্লাব আয়োজনে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

জামালপুর প্রেসক্লাবের প্রতিবাদ সভায় বক্তারা অবিলম্বে সাংবাদিক নাদিম হত্যাকারী সাধুরপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের মাহবুবুল আলম বাবু চেয়ারম্যানকে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে গ্রেফতারসহ ফাঁসির দাবি করেন। প্রতিবাদ সভা থেকে ৩ দিনের শোক কর্মসূচিসহ বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হয়েছে।


Link copied