ছাত্রদের মাথা ন্যাড়া করে গরম পানিতে ঝলসে দেওয়ার অভিযোগ মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে

Anweshan Desk

জাতীয় ডেস্ক

২৫ জুন ২০২২, ১৪:১৭ পিএম


ছাত্রদের মাথা ন্যাড়া করে গরম পানিতে ঝলসে দেওয়ার অভিযোগ মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার একটি মাদ্রাসায় দুই ছাত্রের শরীরে গরম পানি ঢেলে ঝলসানো ও পাঁচজন ছাত্রের মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে মো. মিয়ার মনির নামে  এক মাদ্রাসা শিক্ষকের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) রাত ১১টার দিকে উপজেলার   শ্রীফলতলীতে জামিয়া আরাবিয়া রহিম নেওয়াজ খান হাফিজিয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটেছে।  

 

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থীরা হলেন উপজেলার সৈয়দপুর এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে রাকিবুল ইসলাম (১৫), শ্রীফলতলী এলাকার মহর আলীর ছেলে সানোয়ার হোসেন (১৪), একই এলাকার আনোয়ার মিয়ার ছেলে আবরার হাসান জিসান (১০)।

শিক্ষার্থীদের পরিবার জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে মাদ্রাসায় সবাই ঘুমিয়ে গেলে পাশের একটি কক্ষে ওই ছাত্রদের ডেকে নেন অভিযুক্ত শিক্ষক। পরে কক্ষের দরজা বন্ধ করে পাঁচজন শিক্ষার্থীর মাথা ন্যাড়া করে দেন। এসময় শিক্ষার্থীরা চিৎকারে করলে তাদের মধ্যে তিনজনের শরীরে গরম পানি নিক্ষেপ করলে মুহূর্তেই শিক্ষার্থীদের শরীর ঝলসে যায়।

ঘটনাটি জানতে পেরে ওই রাতেই শিক্ষার্থীদের পরিবারের লোকজন মাদ্রাসায় গিয়ে উপস্থিত হন। কিন্তু আহত শিক্ষার্থীদের সাথে পরিবারের কারো যোগাযোগ করতে দেয়নি মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ। পরে পরিবারের লোকজন জরুরি সেবা ৯৯৯ এ ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে পুলিশের সামনে আহত শিক্ষার্থীদের হাজির করে নানাভাবে বিষয়টি এড়িয়ে যায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ।

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী সানোয়ারের মামা সাদ্দাম হোসেন বলেন, তাঁর ভাগিনা অপরাধ করলে কর্তৃপক্ষ তাদের ডেকে নিয়ে জানাতে পারত। 

শিক্ষক মনির জানান, এ দুই ছাত্রের সমকামিতার কথা জানতে পেরে তিনি শাস্তি দিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের ঝলসে দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, তারা গরম পানিতে পড়ে গিয়েছিল। এ কারণে সামান্য ফোস্কা পড়েছে।

কালিয়াকৈর থানার ওসি আকবর আলী খান জানান, শিক্ষার্থীদের পরিবারকে অভিযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

১৭৪ বার পঠিত

জাতীয় থেকে আরও


Link copied