সালাম না দেয়ায় ভাড়াটিয়াকে বাড়িওয়ালার মারধর

Anweshan Desk

Anweshan Desk

১৮ নভেম্বর ২০২২, ১৬:১২ পিএম


সালাম না দেয়ায় ভাড়াটিয়াকে বাড়িওয়ালার মারধর

ঢাকা শহরের মাটিকাটা মেইনরোড এলাকার ১৩৪/৪ নং বাড়ির মালিক শাহজাদী বশিরের (৬০) বিরুদ্ধে আজ সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে মাহফুজুর রহমান তুহিন (৩৫) নামক একজন ভাড়াটিয়াকে সালাম না দেয়ার কারণে মারধরের অভিযোগ ওঠে।

ভুক্তভোগী তুহিন বলেন, আমি সকালে বাজার করে বাসায় ঢুকে প্রায় ৩ তলায় উঠি। ঠিক তখনই বাড়িওয়ালা খুব জোর আমাকে ডাক দিয়ে নিচে নামতে বলেন। তারপর তিনি আমাকে জিজ্ঞেস করেন আমি মুসলমান কি না। আমি বলি অবশ্যই মুসলমান। তারপর  তিনি  আমাকে জিজ্ঞেস করেন কেন আমি তাকে সালাম দিইনি? জবাবে আমি বলি যে আমি আপনাকে সালাম দেয়ার প্রয়োজন মনে করিনি, তাই।

এরপরই তিনি আমাকে থাপ্পড় মারেন, আমার টি শার্টের কলার ধরে আমাকে টানা হেঁচড়া করেন এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। তিনি মুরুব্বি এবং তিনি নাকি হার্টের রুগী, একারণে ওনাকে আমি কিছু করিনি। 

ভুক্তভোগী তুহিন আরও বলেন, " ২ দিন  আগে আমি আমাদের দরজার সামনে ময়লার ঝুঁড়ি রাখি, কিন্তু ময়লাওয়ালা না আসায় ময়লা নেয়া হয়নি। এতে উনি আমাদের যেভাবে  গালিগালাজ করেন তা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়৷

উনি মুরুব্বি  মানুষ, সুন্নতি দাঁড়ি রাখেন এবং পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন। সেই হিসেবে আমি এমনিতেই ওনাকে সালাম দিতাম। এই সালাম চাওয়া লাগে না। কিন্তুু নামাজি ব্যক্তি হয়ে উনি যেভাবে মানুষকে গালিগালাজ আর দুর্ব্যবহার করেন তাতে তাকে সালাম দেয়া মানের সালামকে অসম্মান করা।

ওই বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়ারা বলেন, এই মুরুব্বীর ব্যবহার এবং মুখের ভাষা খুবই খারাপ। তার ব্যবহারের কারণে ভাড়াটিয়ারা বেশিদিন টিকে না। এখন একটি বাসায় উঠে সাথে সাথে তো আর বাসা ছেড়ে দেয়া যায়না। কারণ, বাসা পরিবর্তন করা খুবই কষ্টকর। তার ব্যবহার সম্পর্কে জানলে এই বাসায় উঠতাম না।

এ ব্যাপারে বাড়ির মালিক ওই মুরুব্বির  সাথে কথা বলতে চাইলে কথা বলতে অস্বীকৃতি জানায় তার পরিবার। মুরুব্বির স্ত্রী এবং এবং ছেলে বলেন ঘটনা নাকি তারা মিটমাট করেছেন।

১৮৪ বার পঠিত

জাতীয় থেকে আরও


Link copied