চট্টগ্রামে শিশুকে বলাৎকারের পর দোষ চাপালো ‘শয়তানের ঘাড়ে'

Anweshan Desk

অন্বেষণ ডেস্ক

০১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪:১৯ পিএম


চট্টগ্রামে শিশুকে বলাৎকারের পর দোষ চাপালো ‘শয়তানের ঘাড়ে'

শিশু বলাৎকারকারী জালাল

১১ বছর বয়সী এক ছেলে শিশুকে বলাৎকার চেষ্টা ও কামড়ে রক্তাক্ত করার পর নিজের অপরাধকে জায়েজ করতে ‘শইল্যে তো মানে না স্যার, শয়তানের ধোঁকায় পড়ছি, আমার কী করার আছে, কন?’এমনই অদ্ভুত যুক্তি হাজির করলেন বলাৎকারকারী ষাটোর্ধ্ব এক ব্যক্তি জালাল। অভিযুক্ত বলাৎকারকারীর ব্যক্তির নাম জালাল।

পুলিশ জানায়, ক্লাস শেষে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ভিকটিম ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রকে মোবাইল ও টাকা দেয়ার লোভ দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে নিয়ে যান জালাল। সেখানে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টার পাশাপাশি তার বুক কামড়ে রক্তাক্তও করেন তিনি। শিশুটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি এসে তার মাকে বিস্তারিত খুলে বললে তিনি (মা) বাদী হয়ে জালালকে একমাত্র আসামি করে রাউজান থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।
 

এদিকে ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর গা ঢাকা দেন জালাল। তবে গা ঢাকা দিয়ে থাকতে পারেনি, ভোরে চট্টগ্রাম জেলার রাউজান উপজেলাধীন নোয়াপাড়া ইউনিয়নস্থ পাঁচখাইন এলাকার এক মাজার প্রাঙ্গন থেকে বলাৎকারের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আটক করে পুলিশ।

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন শামীম বলেন, জালালের ঘরে নিজের স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও তার বিরুদ্ধে একের পর এক শিশু বলাৎকারের অভিযোগ রয়েছে আর তা থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, তিনি সম্ভবত বিকৃত যৌনাচারে অভ্যস্ত একজন মানুষ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও আরও তথ্য উদঘাটনের জন্য রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

অফিসার ইনচার্জ, রাউজান থানা আব্দুল্লাহ আল হারুন বলেন, আটককৃত জালাল আহম্মদকে একজন অভ্যাসগত শিশু বলাৎকারকারী হিসেবে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। এর আগেও ২০১৫ সালের অনুরূপ এক শিশু বলাৎকারের ঘটনায় বেশ কয়েক মাস জেল খাটেন তিনি।
 

১৯২৩ বার পঠিত

জাতীয় থেকে আরও


Link copied