মোহাম্মদকে নিয়ে 'কটূক্তি', সাদুল্লাপুরে স্কুল পরিচালককে হয়রানী করে পুলিশে সোপর্দ

Anweshan Desk

মত প্রকাশের স্বাধীনতা ডেস্ক

১৫ জুন ২০২২, ১৫:১০ পিএম


মোহাম্মদকে নিয়ে 'কটূক্তি',  সাদুল্লাপুরে স্কুল পরিচালককে হয়রানী করে পুলিশে সোপর্দ

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের নলডাঙ্গায় ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক হযরত মোহাম্মদকে নিয়ে 'কটূক্তি'  এবং 'ইসলাম বিরোধী মন্তব্য'  করার অভিযোগ তুলে বাড়ি ঘেরাও করে সুলতান আরিফিন নামে এক ব্যক্তিকে পুলিশে সোপর্দ স্থানীয় ধর্মান্ধ-উগ্রপন্থী মুসলমানদের একটি চক্র।  সুলতান আরিফিন নলডাঙ্গা সোনার বাংলা বিদ্যাপীঠের পরিচালক।

 

বুধবার (১৫ জুন) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে সাদুল্লাপুর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বাজারস্থ বাসা থেকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।  

এর আগে, দুপুরে সুলতান আরিফিনকে ঘেরাও করে রাখে স্থানীয় উগ্রপন্থীরা। এ সময় তারা সুলতানের ফাঁসীর দাবিতে বিক্ষোভ করে ডিগ্রি কলেজ সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ায় বন্ধ হয়ে যায় আশপাশের দোকানপাট। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েকদিন ধরে আরিফিন হযরত মুহাম্মদকে  কটূক্তি এবং ইসলাম বিরোধী সমালোচনাসহ অবমাননাকর কথা বলেন অভিযোগ তোলা হয়।  বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় মুসলমানদের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা দেখা দেয়। বুধবার দুপুরে স্থানীয় কয়েকজন ধর্মান্ধ মুসল্লি আরিফিনের সঙ্গে কথা বলতে তার বাসায় যায়। এসময় নিজের মন্তব্য-ব্যাখ্যা সঠিক বলে তর্কে জড়ায় আরিফিন। পরে খবর পেয়ে আশপাশের লোকজন বিক্ষুদ্ধ হয়ে তার বাসা ঘেরাও করে।   এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে অভিযুক্ত আরিফিনের কঠোর শাস্তির দাবি করেন তারা। পরে তাঁকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে পুলিশের হাতে তুলে দেয় উগ্রপন্থিরা। 

বিষয়টি নিশ্চত করে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার জানান, সুলতান আরিফিনের বাসা ঘিরে রেখেছিল জনগণ। খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে। আটক সুলতান আরিফিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

১১১ বার পঠিত

মত প্রকাশের স্বাধীনতা থেকে আরও


Link copied