নাটোরে ইমাম নিয়োগ করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে হিন্দু পরিবারের উপর হামলা

Anweshan Desk

Joy

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:১৬ এএম


নাটোরে ইমাম নিয়োগ করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে হিন্দু পরিবারের উপর হামলা

নাটোরে মসজিদে ইমাম নিয়োগকে কেন্দ্র করে সংখ্যালঘুদের উপর হামলা

মসজিদে ইমাম নিয়োগ করাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের জেরে নাটরের সিংড়া উপজেলায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ২টি বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, লুটপাট এবং অগ্নিসংযোগের অভিযোগে উঠেছে।

এই ঘটনায় ওখানকার হিন্দু পরিবার দুটির কোনরকম সংশ্লিষ্টতা নেই আর থাকার প্রশ্নও ওঠেনা, তারপরও তারা রেহাই পেল না। যদি এরা একটি ইস্যু তৈরি করতে পারে, তখনই পরিস্থিতি কতটা ভয়ংকর হতে পারে তা একটু ভেবে দেখা যাক।

ঘটনার বিস্তারিত বিবরণে জানা যায়, গত রবিবার সন্ধ্যায় পাকুরিয়া জামে মসজিদের ইমাম নিয়োগ করে সাবেক ইউপি সদস্য মোঃ আলিফ গ্রুপ। সাবেক ইউপি সদস্যের বাড়ি পার্শ্ববর্তী হওয়ায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর ইসলাম আরিফ এর প্রভাবে ইমাম নিয়োগ নিয়ে দুপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি হয়। সোমবার সকালে বর্তমান মেম্বার সহ কয়েকজন কে আসামী করে থানায় অভিযোগ করে সাবেক মেম্বার গ্রুপ।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আবার গতকাল সোমবার দুপুর থেকেই ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন ভাড়া করে ট্রাক, টেম্পু যোগে বিকাল ৪টায় পাকুরিয়া গ্রামে প্রবেশ করে সন্ধ্যা সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত তান্ডব চালায়। এসময় আতংকে মানুষ ছুটোছুটি করতে থাকে। ঘটনার সময় আহসান হাবিবের ইলেকট্রনিকস দোকান, হাসানের মনোহারি দোকান, ভুট্টোর চা দোকান, রানার হোটেল, ফরিদের চায়ের দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়।

টিপু ও আঃ আজিজের বাড়ি ভাংচুর করা হয়। বর্তমান মেম্বারের অফিস ভাংচুর করা হয়। কিন্তু এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিরীহ দুটি হিন্দু পরিবারে উপর  অতর্কিত হামলা হয়েছে। একই সময় স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের কর্মীদের বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র দিয়ে মারপিট ও মেম্বারের অফিসঘর ভাংচুরের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফুর ইসলাম আরিফ এর বিরুদ্ধে।

মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের পিতা নজরুল ইসলাম ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। ইটালি ইউপি'র ১ নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গত ইউপি নির্বাচনে জয়ের পর থেকে ইটালি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর ইসলাম আরিফ তাকে পদত্যাগপত্র দিতে বলে, না হলে দেখে নেয়া হবে বলে হুমকি দেয়। তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল তাঁর লোকজন তান্ডব চালিয়েছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে ইটালি ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আরিফুর ইসলাম আরিফ বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা। এবিষয়ে আমি কিছুই জানিনা।

৩৭২ বার পঠিত

জাতীয় থেকে আরও


Link copied