বীরগঞ্জে দুই আ' লীগ নেতার নেতৃত্বে শ্মশানের জমি দখল করে বালু উত্তোলন ও সমাধি ভাঙচুরের অভিযোগ

Anweshan Desk

ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন

১৪ অগাস্ট ২০২২, ২০:২৯ পিএম


বীরগঞ্জে দুই আ' লীগ নেতার নেতৃত্বে শ্মশানের জমি দখল করে বালু উত্তোলন ও সমাধি ভাঙচুরের অভিযোগ

দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জে স্থানীয় দুই আওয়ামী লীগ নেতার নেতৃত্বে শ্মশান ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। শ্মশানের জমি দখল করে বালু উত্তোলন ও সমাধি ভাঙচুরে স্থানীয় হিন্দুরা বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে তাঁদের ওপর হামলা করে আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ রহমত আলী এবং আব্দুর রাজ্জাক মেম্বারের নেতৃত্বে ভূমি দস্যু বাহিনী। 

 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের ঢেপা নদীর চর দাসপাড়া শ্মশান এলাকায় নিজপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ রহমত আলী এবং আরেক আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে শ্মশানের জায়গা দখল করে বালু উত্তোলন করে আসছে।  বালু উত্তোলনের সময়ে শ্মশানের বেশ কয়েকটি সমাধি ভেঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। গত শুক্রবার (১২ আগস্ট) সকালে দাস পাড়া এলাকার সনাতন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের লোকজন শ্মশানের জমি দখল করে বালু উত্তোলনে বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ রহমত আলী এবং আব্দুর রাজ্জাক মেম্বারের সন্ত্রাসী বাহিনী তাঁদের ওপর হামলা চালায় এবং মারপিট করে। এতে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে এলাকার মানুষ। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

এই ঘটনার প্রতিবাদে শনিবার (১৩ আগস্ট) বেলা এগারোটার দিকে  বীরগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন আয়োজন করেছে ঢেপা নদীর চর দাসপাড়া শ্মশান রক্ষা সংগ্রাম কমিটি।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ বীরগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দিপঙ্কর রাহা বাপ্পির সভাপতিত্বে মানবন্ধন শেষে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ বীরগঞ্জ পৌর শাখার সভাপতি রতন ঘোষ পিযুষ, ঢেপা নদীর চর দাসপাড়া শ্মশান কমিটির সভাপতি নরেন দাস, কমিটির সদস্যা কবিতা দাস প্রমুখ।

সমাবেশে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া সহ  চর দাসপাড়া শ্মশান রক্ষার জন্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকার ও প্রশাসনের কাছে দাবি জানানো হয়। 

 

৩১৩ বার পঠিত

ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন থেকে আরও


Link copied