জবিতে ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে আরেক শিক্ষককে বরখাস্ত

Anweshan Desk

Anweshan Desk

০৩ এপ্রিল ২০২৪, ২২:০৫ পিএম


জবিতে ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে আরেক শিক্ষককে বরখাস্ত

ছবি : গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানিক মুনসীর

যৌন হয়রানির অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে সত্যতা পাওয়ায় সিন্ডিকেট সভায় ফিল্ম এন্ড টেলিভিশন বিভাগের প্রভাষক আবু শাহেদ ইমনকে বরখাস্তের পর এবার বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এ বি এস মানিক মুনসীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বুধবার (৩ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৫তম সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যায়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম সিন্ডিকেট সভা শেষে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে এই অভিযোগে তাকে বিভাগীয় সব কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল।

উপাচার্য জানান, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানিক মুনসীরের বিরুদ্ধে নিজ বিভাগের ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। এজন্য সিন্ডিকেটে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। কেন স্থায়ী বরখাস্ত করা হবে না, সেই জবাব চাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

অধ্যাপক ড. নূরে আলম আব্দুল্লাহ বলেন, গণিত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানিক মুনসীর বিরুদ্ধে নিজ বিভাগের ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে যৌন হয়রানির অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় সিন্ডিকেটে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। কেন স্থায়ী বরখাস্ত করা হবেনা সেই জবাবও চাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

এর আগে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিজ বিভাগের এক ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক বছর শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ ওঠে। এ সময় ওই শিক্ষক অভিযোগকারী ছাত্রীকে জানান, স্ত্রীর সঙ্গে তার বিচ্ছেদ হয়ে গেছে।

সিন্ডিকেট সভায় ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের প্রভাষক আবু শাহেদ ইমন সাময়িক বরখাস্তের পর দ্বিতীয়বার কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। তাকেও কেন স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না তা জানতে চেয়েছে প্রশাসন।

ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন থেকে আরও


Link copied