হিজাবের আড়ালে ডিভাইস ব্যবহার করে পরীক্ষায় জালিয়াতি : আটক ৩

Anweshan Desk

ডেস্ক রিপোর্ট

২৯ মার্চ ২০২৪, ১৩:৫১ পিএম


হিজাবের আড়ালে ডিভাইস ব্যবহার করে পরীক্ষায় জালিয়াতি : আটক ৩

ছবি : অভিযুক্ত রিনা আক্তার ও তার ভাই জলিল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা চলাকালে হিজাবের আড়ালে ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে নকল করায় এক পরীক্ষার্থীসহ দুজনকে আটক করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ শুক্রবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর ডিগ্রি কলেজের পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়।

কলেজ সূত্রে জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে সকাল ১০টায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ-২০২৩ পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা পার হলেও ১০১ নম্বর কক্ষে থাকা পরীক্ষার্থী রিনা আক্তার উত্তরপত্রে কিছু না লিখে বসে অপেক্ষা করছিলেন। এটি দেখেই সন্দেহ জাগে দায়িত্বরত কেন্দ্র পরিদর্শকের।

তিনি বিষয়টি কলেজের অধ্যক্ষকে জানালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খবর দেওয়া হয়। পরে তল্লাশি চালিয়ে ওই পরীক্ষার্থীর কানের ভেতর থেকে ছোট একটি ওয়্যারলেস অডিও ডিভাইস এবং তার সঙ্গে থাকা সিম সম্বলিত এটিএম কার্ড সদৃশ একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস উদ্ধার করা হয়। পরে ওই পরীক্ষার্থীর দেওয়া তথ্য থেকে পরীক্ষার হলের বাইরে অপেক্ষারত তার ভাইকেও আটক করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সেলিম শেখ বলেন, 'আমরা পরীক্ষা কক্ষে ঢুকে বোরকা ও হিজাব পরিহিত ওই পরীক্ষার্থীর কান তল্লাশির কথা বললে সে আমাদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে রূঢ় আচরণ করে। এরপর নারী পুলিশ সদস্যদের দিয়ে তল্লাশি চালিয়ে তার কান থেকে খুবই ছোট আকারের একটি ওয়্যারলেস অডিও ডিভাইস উদ্ধার করা হয়। একইসঙ্গে তার কাছ থেকে সিম সম্বলিত এটিএম কার্ড সদৃশ একটি ডিভাইস উদ্ধার করা হয়।'

আটক রিনা ও জলিল সম্পর্কে আপন ভাই-বোন। তারা বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের টুকচানপুর গ্রামের আব্দুল মালেকের সন্তান।

আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় নিয়মিত মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন ইউএনও।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) মোহাম্মদ সেলিম শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, 'আটকের পর রিনা জানিয়েছে তার ভাইয়ের এক বন্ধুর কাছ থেকে তারা বিশেষ এই ডিভাইস সংগ্রহ করেছেন। এটি একটি চক্রের কাজ। মামলার মাধ্যমে এই চক্রটির সঙ্গে জড়িত সবাইকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করা হবে।'

ধর্মীয় সংখ্যালঘু নির্যাতন থেকে আরও


Link copied