আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যা : একদিনেই মৃত্যু ৩ শতাধিক

Anweshan Desk

Anweshan Desk

১২ মে ২০২৪, ১৫:০২ পিএম


আফগানিস্তানে আকস্মিক বন্যা : একদিনেই মৃত্যু ৩ শতাধিক

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ধ্বংসাবশেষ পরিষ্কার করছেন এক ব্যক্তি। ছবি : জিনহুয়া

আফগানিস্তানের বঘলান, তাখার ও বাদাকাশানের পাশাপাশি পশ্চিমাঞ্চলীয় ঘোর ও হেরাত প্রদেশে ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে নদ-নদীর পানি বেড়ে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে প্রদেশগুলোতে। গ্রামের পর গ্রাম, সড়ক ও কৃষিজমি কাদায় ঢেকে গেছে।

শুক্রবারে অস্বাভাবিক বৃষ্টির ফলে অঞ্চলটিতে আকস্মিক বন্যার সৃষ্টি হয়। এতে করে  বন্যার প্রভাবে কয়েক হাজার বাড়িঘর ধ্বংস এবং একদিনে তিন শতাধিক মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। তবে এতে আরও হতাহতের আশঙ্কা রয়েছে। শনিবার (১১ মে) বিশ্ব খাদ্য সংস্থার (ডব্লিউএফপি) বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা জিনহুয়া।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা গেছে, বহু মানুষ বাঘলানের হাসপাতালে জড়ো হয়েছেন। তারা সবাই তাদের স্বজনকে খুঁজছেন। এ সময় একজন কর্মকর্তা বলেন, তাদের কবর খনন শুরু করা উচিত। তাদের কর্মীরা দাফনের জন্য মরদেহগুলোকে প্রস্তুত করছেন।

আফগানিস্তানের জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, কেবল বাঘলানে দেড় হাজার ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত এবং ধ্বংস হয়ে গেছে। এছাড়া সেখানে শতাধিক মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। 

তালেবান সরকারের প্রধান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) লেখেন, বন্যায় শত শত মানুষের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন অসংখ্য মানুষ। সরকার বন্যাকবলিতদের উদ্ধার, আহতদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া এবং মৃতদের দাফনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বন্যা কবলিত অঞ্চলগুলোতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। বন্যাকবলিত এলাকার বাসিন্দাদেরকে খাদ্য, ওষুধ ও প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

গত মাসের মাঝামাঝিতেও দেশটির ১০টি প্রদেশ বন্যার কবলে পড়ে, যেখানে শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।

সাক্ষাৎকার থেকে আরও

কোনো খবর পাওয়া যায়নি


Link copied